June 30, 2022, 4:08 pm

স্বাগতম:
আমার ব্লগে আপনাকে স্বাগতম। সামাজিক আচরণ করুন, সকল-কে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখুন।

পিয়ারলেস হসপিটেক্স হসপিটালে চিকিৎসা নেয়ার নিয়ম

বাংলাদেশী হয়ে কিভাবে পিয়ারলেস হসপিটেক্স হসপিটালে চিকিৎসা নেবেন।
চিকিৎসার জন্য ভারত ভ্রমন(পিয়ারলেস হসপিটেক্স হসপিটাল এন্ড রিচার্চ সেন্টার লি:, ২২৩, চিত্তরঞ্জন এভিনিউ,শান্তিপার্ক, কলকাতা)পর্ব-২:
আপনি যদি বাসে কলকাতা আসেন তাহলে সর্বশেষ বাসস্টপ ধর্মতলায় নামবেন।সেখান থেকে বাস পাবেন সাইন্স সিটির অথবা শান্তিপার্ক অথবা সরাসরি পিয়ারলেস হাসপাতাল বলে উঠবেন। সরাসরি হাসপাতালে নামবেন, ভাড়া ১৮/২০টাকার বেশি নয়।যদি টেক্সি নেন তাহলে ২৫০টাকা ডাইরেক্ট পিয়ারলেস হাসপাতাল।
আপনি যদি ট্রেনে আসেন কলকাতা তাহলে হাওড়া অথবা শিয়ালদাহ স্টেশনে নামবেন। হাওড়া ট্রেন স্টেশনের উত্তর গেটদিয়ে বের হলে সামনে বাসস্টপ পাবেন, সেখান থেকে পিয়ারলেস হাসপাতাল যাবেন। ভাড়া ৩০টাকা। হাওড়ায় টেক্সি বিষয়টা একটু ভিন্ন। ২নং স্টেশন গেট দিয়ে বের হয়ে রাস্তার মাঝে বুথগুলো থেকে টেক্সি প্রিপেইড করে নিতে হয়। অনেক সময় লাইনে দাড়িয়ে বুথে টাকা জমা দিতে হয়। সেখানে টেক্সি নাম্বার পাবেন, সেই নাম্বারে টেক্সি সিরিয়ালে লাগানো আছে। উঠে পড়বেন ডাইরেক্ট পিয়ারলেস হাসপাতাল পৌছে দেবে। এখানে ভাড়া বেশি নেয়ার কোন স্কপ নেই।ভাড়া ৩০০টাকা নেবে।শিয়ালদাহ স্টেশন থেকে যে কোন গেট দিয়ে বের হলে সামনে টেক্সি পাবেন ভাড়া ৩০০টাকা (৭০০টাকা পর্যন্ত চাইতে পারে, বাকিটা আপনার উপর)দিয়ে পিয়ারলেস হাসপাতাল পৌছাবেন। অথবা মহাত্মাগান্ধী রোডের বাম পাশে দাড়ালে বাস পাবেন, ভাড়া ১৮/২০টাকার উর্ধে নয়।চেষ্টা করবেন বেলঘাটা হয়ে যে বাসগুলো যায় সেগুলোতে উঠার। রাস্তাটা অনেক ফাকা থাকে।
পিয়ারলেস হাসপাতাল পৌছার পর সরাসরি ২য় তলায় উঠে যাবেন। ডানপাশে অনুসন্ধানীতে সিরিয়ালে ব্যাপারে বললে তারা আপনাকে দক্ষিন পাশের কাঁচের বড় রুমে অবস্থান নিতে বলবে। চেষ্টা করবেন ৬টার দিকে গিয়ে ডানপাশের ১ম চেয়ারটাতে বসার। কারণ ৮টার সময় ডানপাশের চেয়ারে অবস্থানরত ব্যক্তিকে ১ তারপরেজন ২/৩/৪ এভাবে ক্রমিকে সাজানো হবে। ৯টার মধ্যে কাউন্টারে লোকজন আসলে সিরিয়াল অনুপাতে কাউন্টারে যান এবং রেজিষ্ট্রেশন করে আপনি ডাক্তারের নাম উল্লেখ্য করুন। নাম না জানা থাকলে ডিপার্টমেন্টের কথা উল্লেখ করুন। যেমন-মেডিসিন, গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজি,গাইনী, এলার্জি ইত্যাদি।কাউন্টার থেকে আপনাকে ২জোড়া কাগজ দেয়া হবে। পাশের রুমে অবস্থানরত নার্সকে ১মজোড়া কাগজটি দিয়ে নিশ্চিত হয়ে নিন ডাক্তার কখন আসবেন, আপনাকে কখন দেখবেন এবং কত নম্বর রুমে ডাক্তার বসবেন।এরপর আপনি বাইরে গিয়ে নাস্তা করে আসতে পারেন। তবে যদি লিভার/গ্যাস্ট্রো/কিডনি সমস্যাজনিত ব্যক্তি হোন তাহলে নাস্তা করার প্রয়োজন নেই। কারণ ডাক্তার ইউসিজি চেকআপ দিলে আবার পরের দিনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।১দিন আপনার লস।
সিরিয়াল পাওয়ার পর এবার থাকার জন্য রুম খুজতে হাসপাতালে সামনের দিকে অনেক গুলো গেস্টহাউজ আছে। আপনি অবশ্যই চেষ্টা করবেন ২০০থেকে ৪০০টাকার মধ্যে রুমে। কারণ সব রুমের রেঞ্জ একই।আর সব বাঙ্গালী হওয়ার আপনি ঠোকার সম্ভাবনায় পড়তে পারেন। রুম পেলে ফ্রেস হয়ে ডাক্তারের দেয়া সময়ের আগে নির্দিষ্ট রুমের সামনের চেয়ারগুলোতে বসে অপেক্ষা করুন।ডাক্তার দেখানোর পরপরেই চেকআপ/টেষ্ট করার জন্য টাকা ঐকাউন্টারেই যাবেন যদি ফাকা থাকে। যদি ফাকা না থাকে তাহলে যেকোন কাউন্টারে(রিপোর্ট ডেলিভারী কাউন্টার বাদে) গিয়ে টাকা জমা দিয়ে টেষ্ট সেম্পল জমাদিন। টাকা জমা দেয়ার সময় অবশ্যই কোন সেম্পল কত নম্বর রুমে জমা দেবেন সেটা নিশ্চিত করে জেনে নেবেন। কখন রিপোর্ট পাবেন সেটাও তাড়াহুড়া করে জেনে নিন। যদি ঐদিনেই হয় তাহলে ডাক্তার দেখিয়ে চলে আসতে পারবেন ঐদিনেই নয়তো পরেরদিন ঐডাক্তারকে পাবেন না। ওখানে ডাক্তার বসার সিস্টেম হলো-ড: পি.এস. সিনহা, স্পেশাল ক্লিনিক সোম/বুধ/শুক্রো। তার মানে সোমবার দেখালে মঙ্গলবার নেই বুধবার তাকে পাবেন। রিপোর্টগুলো সংগ্রহ হয়ে গেলে ডাক্তারকে দেখানোর আগে কাউন্টার থেকে আবার ১জোড়া কাগজ সংগ্রহ করে নিন। তারপর সেটা পাশের রুমের নার্সকে দিয়ে ডাক্তার আসার সময় এবং আপনার সিরিয়াল নিশ্চিত করুন।সময় মত ডাক্তার দেখিয়ে প্রেসক্রিপশন নিয়ে খুশি মনে ফিরে আসুন।আপনার হেয়ালিপনা আপনার কাজকের গতিকে ব্যাঘাত ঘটাবে। সুস্থ থাকুন, হয়রানী মুক্ত থাকুন। সকলের জন্য দোয়া রইলো। পোষ্টটি শেয়ার করে সকলকে পড়ার সুযোগ করে দিন। আশাকরি সকলেই উপকৃত হবেন। লিখা চোরগণ দুরে থাকুন।আরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করুন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved 2020 msbabu.com