June 30, 2022, 5:18 pm

স্বাগতম:
আমার ব্লগে আপনাকে স্বাগতম। সামাজিক আচরণ করুন, সকল-কে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখুন।

ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে দুটি কথা-

একটি কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ ইন্টারনেট সংযোগ নিয়েই হয়ে গেলেন ফ্রিল্যান্সার ? বলা যতটা সহজ হওয়া ততটা সহজ নয়। আপনি যদি কোন প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে বা চাকুরী করতে যান তবে সেখানে আপনাকে পরীক্ষা দিয়ে আপনার যোগ্যতা প্রমাণ করতে হবে। সময় মত অফিসে যেতে হবে। কাজ করতে হবে। আর অনলাইনে কাজ করার জন্য ধরাবাধা সময় না থাকলেও আপনারকে সময়ের কাজ সময়ে করতে হবে। একজন বায়ার আপনাকে ইন্টারভিউ এর জন্য কল করেছে কিন্তু আপনি সেটি টের পেলেন কয়েকঘন্টা পরে। আর স্কাইপিতে বায়ার কথা বলবে কিন্তু নেটের লাইনে সমস্যা। অপর দিকে বসের ঝাড়ি খেতে হবে অফিসে ঠিকমত কাজ না করলে। উভয় সঙ্কট। 😥
ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করলে ঈদের কিংবা পুজার আনন্দ শিকেয় তুলে রাখতে হবে। কেননা কাজের চাপে যখন আপনি বসে রয়েছে তখন আপনার বন্ধু বসে বসে আড্ডা দিচ্ছে গ্রামের বাড়িতে নদীর উপরের ব্রিজে মনটা খারাপ হওয়ার মতই কথা। সে বছরে কত ছুটি পাচ্ছে আর আপনি মাউস আর কীবোর্ড দিয়ে ঝড় তুলে যাচ্ছেন অনলাইনে। মন খারাপ করা কিছুই নেই। আপনি ইচ্ছে করলে চাকুরীর পাশাপাশি অনলাইনে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করতে পারেন। অফিসে যাওয়ার কোন ইচ্ছে না থাকলে যানজট না পেরিয়ে আপনি নিজের ঘরেই তৈরি করে ফেলুন অফিস। বসের ঝাড়ি খাওয়ার ভয় নাই। লেট করে অফিসেও যেতে হবে না।
এখন আসি ফ্রিল্যান্সিং এর কথায়। অনলাইনে বসে বসে বিড করে যাচ্ছেন ইন্টারভিউতে কল করছে না। কাজও পাচ্ছেন না। এখন চাকুরি করলে তো মাসে মাসে টাকা পেতেন। এখন আপনি যদি শুধুমাত্র একটি বিষয় নিয়েই অনলাইনে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চান তবে এটি রিস্ক হয়ে যায়। কোথায় যেন শুনেছিলাম No Risk No Gain ।

আপনি অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে প্রথমে আপনাকে নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে হবে। দীর্ঘমেয়াদী যুদ্ধের জন্য। Upwork ফ্রিল্যান্সার ইল্যান্সার এ একাউন্ট তৈরি করার আগে ভাবুন আপনি কি কাজ পারেন ভালো মত কিংবা কি কি কাজ করতে পারবেন ভালো মত। কোনমতে নয় পুরোপুরি ভালো ভাবে যাতে করে অন্যকে সন্তুষ্ট করতে পারেন। সাম্প্রতিক সময়ে পিটিসি করে অনেকে বিশাল ধরা খেয়ে এখন গণহারে ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলোতে একাউন্ট বানাচ্ছে যার উদাহরণ ফেসবুকে টেকটিউনস এ অনেকবারই দেখেছেন। এমন পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র ফ্রিল্যান্সিং সাইটের উপর নির্ভর করে চলে না। রাতে কাজ করে ঘুমিয়েছেন সকালে উঠে দেখবেন বায়ার কাজ বন্ধ করে দিয়েছে কোন কারণ ছাড়াই। কারণ কম রেটে অনেকেই কাজ করছে এখন। ১০০ ডলারের কাজ ২০ ডলারে করে দিচ্ছে। নিজের সাথে সাথে অন্যের কপাল পুড়ছে এতে। ফ্রিল্যান্সিং এর পাশাপাশি নিজের অবলম্বনের জন্য কয়েকটা সাইট তৈরি করুন। যাতে করে সেখান থেকে মাসে মাসে অন্তত চলার মত কিছু আসে। একে বারে বেকার বসে থাকতে না হয় আপনাকে।
কি কি করতে পারেন? আপনি যদি ইংরেজিতে দক্ষ হন তবে কথা তো নেই। আপনি আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারেন। নিজের সাইটের জন্য ইউনিক কনটেন্ট লিখে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে আয় করা সম্ভব। আর যদি সেটি সম্ভব না হয় তবে অন্যান্য যে এড রয়েছে সেগুলোর মাধ্যমেও আয় করা সম্ভব। সাইটে লেখা ছবি সব কিছু্র মাধ্যমেই আয় করা সম্ভব।
বর্তমানে অনেকে মোবাইলের জন্য সাইট বানিয়েও আয় করছেন। বাংলাদেশে অনেকেই রয়েছেন যাদের এই রকম সাইট রয়েছে আয়ও হচ্ছে ভালোই। সবচেয়ে বড় কথা হল কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকলে আপনাকে বেকার কখনই বসে থাকতে হবে না। আপনার কাজের মূল্যায়ণ হবেই। upwork.comএ কাজ করলে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে। এখন একটি কাজের জন্য সেন্সে বিড করলেন করলেন পরে যখন অন্য কাজের জন্য বিড করবেন ডলারে বায়ার কিন্তু ঠিকই আপনার কাজের ইতিহাস দেখবে। সেন্টে কাজ করে ডলারে কাজ কিভাবে আশা করেন। তবে মাঝে মধ্যে করতে হয় সেটি আপনার একাউন্টের স্বার্থে। রেটিং বাড়ানোর জন্য।

ভালো লাগলে আজই নেমে পড়ুন মাউস কিবোর্ড নিয়ে অনলাইনের বিশাল জগতে। গড়ে তুলুন নিজের ক্যারিয়ার। আর হ্যা একটি কথা না বললেই নয়। নবীন হলে রিস্ক নিতে যাবেন না। নিজের জন্য চাকুরী করুন পাশাপাশি অনলাইনে নিজেকে তৈরি করুন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved 2020 msbabu.com